Wednesday, 18 July 2018
RSS Facebook Twitter Linkedin Digg Yahoo Delicious
সংবাদ শিরোনাম

মেয়ের জন্যই বেঁচে আছি

বর্তমান সংবাদ, বিশেষ প্রতিবেদন : প্রিন্টের পুরনো জীর্ণশীর্ণ জামা, পায়ে ছেড়া স্যান্ডেল। মাথায় ঝাঁকা আর হাতে একটি টোল। তবুও মুখে মিষ্টি হাসি। বয়স বিঁশ কি বাইশ। দেখলেই বোঝা যায়, মনে অনেক কষ্ট, কিন্তু আছে অনেক স্বপ্ন। অভাবের তাড়নায় নিজেই ঝালমুড়ি বিক্রি করে থাকে রাস্তায় রাস্তায়। সকাল থেকে সন্ধ্যা, দিনের পর দিন, বছরের পর বছর ধরে ঝালমুড়ি বিক্রি করে চলছে হাসিনা বেগম এর সংসার।

 

নাম তার হাসিনা বেগম। গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায়। পিতার নাম মৃত. ফজিন মিয়া। বর্তমানে থাকেন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চান্দরা পল্লীবিদ্যুৎ জোড়াপাম্প এলাকায় নজরুল ইসলামের বাড়িতে মেয়ে বিউটিকে নিয়ে ভাড়া থাকে  এবং উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঝালমুড়ি বিক্রি করে সংসার চালায়। 

 

কথা হয় হাসিনা বেগমের সাথে। সে জানায়, তারা তিন ভাই বোন। এর মধ্যে হাসিনা বেগম তিন নাম্বার। পরিবারিকভাবে ২০০৯ সালে বিয়ে হয় মানিকগঞ্জের আনিছ মিয়ার সাথে। তাদের ঘরে আসে ফুটফুটে এক কন্যা সন্তান। নাম তার বিউটি। বিয়ের ৫ বছরের মাথায় তার স্বামী কাউকে কিছু না বলে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। এরপর বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখোঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়না। এরপর থেকে চলে তার জীবন সংগ্রাম। জীবন সংগ্রামে বেঁচে থাকার জন্য সে বিভিন্ন পোশাক কারখানায় কাজ নিতে যেয়েও লেখাপড়া না জানার কারণে কোথাও চাকুরী হয়না। পরে একরকম নিরুপায় হয়ে শুরু করে ঝালমুড়ি বিক্রি। প্রথম প্রথম একটু সমস্যা হতো এখন আর তা হয়না। মেয়ে বিউটি আক্তারকে সাথে নিয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করতে যায়। এ থেকে যা পায় তা দিয়েই চলে তাদের মা-মেয়ের সংসার। 

 

বর্তমান সরকার নারীদের যে সুযোগ সুবিধা দিয়েছে তার কোনটিই তিনি পাননি বলে আবেগ আপ্লুত কন্ঠে জানান তিনি। ঝালমুড়ি বিক্রি করে প্রতিদিন তার  ২শ থেকে ৩শ টাকা আয় হয়। এ দিয়ে ঘর ভাড়া, নিজের ও মেয়ের খরচ চলে যায়। ঝালমুড়ি বিক্রি করে যা আয় হয় তা নিজের সংসারই ঠিক মত চলেনা বিধায় একমাত্র মেয়েকে লেখাপড়া করাতে পারছেনা হাসিনা। 

 

হাসিনা বেগম কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, ‘আর্থিক অস্বচ্ছলতা আর নিরক্ষরতা আমাকে ঝালমুড়ি বিক্রি করতে বাধ্য করেছে। এছাড়া মেয়েও বড় হচ্ছে। কিন্তু আর্থিক অনটনের অভাবে মেয়েকে কোন স্কুলে ভর্তি করাতে পারছিনা। লেখাপড়া কিছুটাও যদি জানতাম তাহলে হয়তো আজ অন্তত ঝালমুড়ি বিক্রি করে সংসার চালাতে হতো না। আর এখন মেয়ের জন্যই বেঁচে আছি।’

 

নামাজের সময়সূচী

ওয়াক্ত শুরু জামাত
ফজর ৫-০৬ ৫-৪৫
জোহর ১২-১৪ ১-১৫
আসর ৪-২৩ ৪-৪৫
মাগরিব ৬-০৬ ৬-১১
এশা ৭-১৯ ৮-০০

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ