Sunday, 23 September 2018
RSS Facebook Twitter Linkedin Digg Yahoo Delicious
সংবাদ শিরোনাম

বিশ্ব বাবা দিবস আজ

ডেস্ক রিপোর্ট :
পৃথিবীতে অনেক খারাপ মানুষ আছে, তবে একজনও খারাপ বাবা নেই। এবিশ্বাসেই বাবারা হিরো, প্রতিটি সন্তানের চোখে। পরিবারের শত অনটনের মাঝেও যার কথায় পুরো নির্ভর করা যায়, সে তো বাবা। বাবা বাড়িতে আছেন মানে পুরো পরিবার নিরাপদ, এই আস্থার মানুষটিই তো সুপার হিরো। ভরসা ও ছায়ার নাম বাবা। পরম নির্ভরতার প্রতীক। আজ বিশ্ব বাবা দিবস।

‘কাটে না সময় যখন আর কিছুতে... বন্ধুর টেলিফোনে মন বসে না... জানলার গ্রিলটাতে ঠেকাই মাথা... মনে হয় বাবার মতো কেউ বলে না... আয় খুকু আয়, আয় খুকু আয়...।’

হেমন্ত মুখোপাধ্যায় ও শ্রাবন্তী মজুমদারের গাওয়া এই গানটি সন্তানদের এক অসীম নস্টালজিয়ায় ডুবিয়ে দেয়। বাবা, সন্তানের মাথার ওপর যার স্নেহচ্ছায়া বটবৃক্ষের মতো, সন্তানের ভালোর জন্য জীবনের প্রায় সবকিছুই নির্দ্বিধায় ত্যাগ করতে হয় তাকে, আদর-শাসন আর বিশ্বস্ততার জায়গা হলো বাবা। আর বাবার তুলনা বাবা নিজেই। বাবা, সে তো বাবাই। যার কল্যাণে এই পৃথিবীর রূপ, রঙ ও আলোর দর্শন। বাবা শাশ্বত, চির আপন, চিরন্তন।

বাবা, ভাষাভেদে শব্দ আর স্থানভেদে বদলায় উচ্চারণ, তবে বদলায় না রক্তের টান। দেশ থেকে দেশে কিংবা সময় থেকে সময়ে একই মমতায় চিরন্তন পিতা-সন্তানের বন্ধন।

বাবা মানে নিঃস্বার্থ ভালোবাসার এক ঠিকানা, বাবা মানে নির্ভরতা, শর্তহীন নিরাপত্তা, বাবা মানে বিশালতা। বাবাহীন জীবন যেন ধূসর মরুর ঊষর বুক, শ্বাপদ সংকুল বনে দুরু দুরু হৃৎকম্পন; বাবাহীন জীবন ছোট্ট ডিঙ্গি নিয়ে উত্তাল সাগর পাড়ি দেয়ার দুঃসাহসিক চেষ্টার নাম।

বিশ শতকের গোড়ার দিকে দিবসটি পালন শুরু হয় যুক্তরাষ্ট্রে। ১৯৬৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট লিন্ডন বি জনসন জুন মাসের তৃতীয় রোববারকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাবা দিবস হিসেবে নির্ধারণ করেন। বাংলাদেশসহ এশিয়া ও ইউরোপের অধিকাংশ দেশ জুন মাসের তৃতীয় রোববার পালন করে দিবসটি।

নামাজের সময়সূচী

ওয়াক্ত শুরু জামাত
ফজর ৫-০৬ ৫-৪৫
জোহর ১২-১৪ ১-১৫
আসর ৪-২৩ ৪-৪৫
মাগরিব ৬-০৬ ৬-১১
এশা ৭-১৯ ৮-০০

ফেসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ